খবর

আজকের ঘূর্ণিঝড়ের সংবাদ : ঘূর্ণিঝড়ের আবহাওয়া পূর্বাভাস – ৭ নম্বর বিপদ সংকেত [ঘূর্ণিঝড় সিত্রং live]

[২৪ অক্টোবর ২০২২] আজকের ঘূর্ণিঝড়ের সংবাদ / ঘূর্ণিঝড় সিত্রং live : বাংলাদেশের উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং। এটি বড় আকারের ঘূর্ণিঝড় হবে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদেরা। দেশের উপকূলের প্রায় প্রতিটি জেলায় সিত্রাংয়ের প্রভাবে প্রবল বৃষ্টি ও ঝোড়ো হাওয়া হচ্ছে।বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং এর কারণে মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ৬ নম্বর দেখাতে বলা হয়েছে। 

আজকের ঘূর্ণিঝড়ের সংবাদ [২৫ অক্টোবর ২০২২]

  • ঘূর্ণিঝড় ‘সিত্রাং’র অগ্রবর্তী অংশের প্রভাবে রংপুর বিভাগ ছাড়া সারাদেশে ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টি হচ্ছে। উপকূলীয় অঞ্চলসহ বিভিন্ন স্থানে বইছে ঝোড়ো হাওয়া। রোববার (২৩ অক্টোবর) থেকে ঢাকার আকাশ মেঘেঢাকা ছিল। রাতে হালকা বৃষ্টি হয়েছে। তবে সোমবার (২৪ অক্টোবর) সকাল থেকে শুরু করে ঢাকায় বইছে টানা বৃষ্টি। ঘন মেঘে ঢেকে আছে আকাশ। ঢাকায় সর্বোচ্চ ৭০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে গেছে।

  • অন্যদিকে, রোববার সন্ধ্যা ৬টা থেকে সোমবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় ১২৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর। টানা বৃষ্টিতে রাজধানীর অনেক পথঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে। বিভিন্ন এলাকা জলাবদ্ধ হয়ে পড়েছে।

  • মঙ্গলবারও (২৫ অক্টোবর) ঢাকা, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, খুলনা, চট্টগ্রাম, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের বেশির ভাগ স্থানে বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে। এর মধ্যে কোথাও ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টিও হতে পারে বলেও জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। রোববার সন্ধ্যা থেকে সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি ২৯৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে পটুয়াখালীর খেপুপাড়ায়।

  • বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর ঘূর্ণিঝড় ‘সিত্রাং’ নিয়ে সর্বশেষ (সন্ধ্যা ৬টা) বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় ‘সিত্রাং’ বাংলাদেশের উপকূলের ১৭০ কিলোমিটারের মধ্যে চলে এসেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৭ নম্বর বিপৎসংকেত দেখাতে হবে। কক্সবাজার বন্দরে থাকবে ৬ নম্বর বিপৎসংকেত।

  • ঘূর্ণিঝড়টি সোমবার মধ্যরাত বা মঙ্গলবার ভোর নাগাদ ভোলার কাছ দিয়ে বরিশাল-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম শুরু করতে পারে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি।

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং এর অবস্থান (Cyclone sitrang live tracking)

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের খবর [২৪ অক্টোবর ২০২২]

  • ২৪ অক্টোবর ২০২২ (সোমবার) দুপুরের সংবাদ : সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৫-৭ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছাসে প্লাবিত হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।  
  • বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং এর কারণে মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ৬ নম্বর দেখাতে বলা হয়েছে। 
  • বাংলাদেশ উপকূলের আরও কাছাকাছি চলে এসেছে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং। বর্তমানে সিত্রাং পায়রা বন্দর থেকে ৩৩৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে।  
  • পূর্ব-মধ্যবঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন পশ্চিম মধ্যবঙ্গোপসাগর এবং উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘সিত্রাং’ উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এবং তৎসংলগ্ন উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আজ দুপুর ১২টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৪৪০ কি.মি. দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৩৯৫ কি.মি. দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩৬৫ কি.মি. দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩৩৫ কি.মি. দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছিল। 
  • ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং-এর অগ্রবর্তী অংশ, অমাবশ্যা তিথি ও বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্যের প্রভাবে এই জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা করা হচ্ছে।  
  • দেশের উপকূলীয় জেলাগুলোর মধ্যে বরগুনা-পটুয়াখালীতে সিত্রাং-এর প্রভাব পড়বে সবচেয়ে বেশি পড়তে পারে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান। 
  • চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও বরিশাল বিমানবন্দর বন্ধ ঘোষণা। 
  • ঝোড়ো হাওয়ায় সেন্টমার্টিনে ডুবে গেছে অন্তত ১৫টি মাছ ধরার ট্রলার। 

  • ২৪ অক্টোবর ২০২২ (সোমবার) সকাল ৯টার দিকে আবহাওয়া অধিদপ্তরের দেওয়া ৮ নম্বর বিশেষ বার্তায় বলা হয়েছে, সোমবার সকাল ৮টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৫৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ–পশ্চিমে; কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৫৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণ–পশ্চিমে; মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৫২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ–পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৪৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ–পশ্চিমে অবস্থান করছিল।

সিত্রাং ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব বেশি হওয়ার কারণ

আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, সিত্রাং বড় আকারের ঘূর্ণিঝড়। ঘূর্ণিঝড়টির প্রভাব অনেক বেশি হতে পারে। এ জন্য তারা ৩টি কারণের কথা বলছে।

কারণ ৩টি হলো ঘূর্ণিঝড়টির অগ্রবর্তী অংশ, অমাবস্যা তিথি ও বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্য। আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. আবদুল মান্নান এই কারণ তিনটির ব্যাখ্যা দিয়েছেন।

  • প্রথমত, সিত্রাংয়ের অগ্রবর্তী অংশের আচরণ দেখে ঘূর্ণিঝড়টির সম্ভাব্য প্রবল প্রভাবের বিষয়টি আঁচ করা যাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়টির মূল শরীর এখনো দূরে আছে। যখন মূল শরীর সামনের দিকে আসবে, তখন পরিস্থিতি আরও নাজুক হতে পারে।
  • দ্বিতীয়ত, ঘূর্ণিঝড়টি উপকূলে আঘাত হানার সময় অমাবস্যা থাকবে। অমাবস্যার সময় চন্দ্র ও সূর্য একই দিক থেকে পৃথিবীকে আকর্ষণ করে। যার কারণে পৃথিবীর বুকে যে জলভাগ আছে, তার ওপর অতিরিক্ত আকর্ষণ তৈরি হয়। এতে জলভাগ উত্তাল হয়ে পড়ে।
  • তৃতীয়ত, এবার বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্য লক্ষ করা যাচ্ছে। এ কারণে এবারের পরিস্থিতি অনেকটাই ঝুঁকিপূর্ণ। বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্যের প্রভাবে বায়ুমণ্ডলে একধরনের চাপ সৃষ্টি হয়, যা জলভাগের ওপর চাপ তৈরি করে।

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং এখন বাংলাদেশ উপকূলমুখী। ঘূর্ণিঝড়টি আজ সোমবার সকাল আটটা নাগাদ চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৫৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে; কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৫৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে; মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৫২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৪৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল।

Rate this post

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button