চাকরির প্রস্তুতি

রেলওয়ে সহকারী স্টেশন মাস্টার পদের কাজ কি?

রেলওয়ে সহকারী স্টেশন মাস্টার পদের কাজ কি? এই প্রশ্নটি অনেকেরই। এই লেখায় স্টেশন মাস্টার পদের কাজ, বেতন, প্রমোশন, কাজের ধরন ও সময়, ছুটি ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা করা হলো।

দায়িত্ব বা কাজ কি কি

সহকারী স্টেশন মাস্টার বা অ্যাসিস্টান্ট স্টেশন মাস্টার (ASM) এর দায়িত্ব আর স্টেশন মাস্টারের (SM) প্রায় একই। কোনো রেলওয়ে স্টেশনের যাবতীয় দায়িত্ব পালন করেন সহকারী স্টেশন মাস্টার / স্টেশন মাস্টার। বড় রেলওয়ে স্টেশন বা জংশনে ৩-৪ জন স্টেশন মাস্টার থাকের। তবে ছোটো রেলওয়ে স্টেশনে সাধারণত একজন সহকারী স্টেশন মাস্টার / স্টেশন মাস্টার থাকেন।প্লার্টফর্মের ট্রেন পাসিং, সিগন্যালিং তার মূল দায়িত্ব হলেও, যাত্রীদের সুরক্ষা, কোনো ঝামেলা হলে স্টেশনে, অসুস্থতা বিষয়ক সমস্যা ও স্টেশনে সংশ্লিষ্ট আরো কিছু দায়িত্ব পালন করতে হয় এই পদের কর্মকর্তাকে। অনেক সময় পারসেল রিসিভ করতে হয়, মেল ট্রেনকে ফ্লাগ দেখিয়ে সিগন্যালও দিতে হয়।

ডিউটির সময়

মূলত শিফট ডিউটি থাকে স্টেশন মাস্টার দের। নির্ধারিত শিফটে ৮ ঘন্টার ডিউটি থাকলেও কোনো জরুরি প্রয়োজন বা সমস্যা হলে নির্ধারিত সময়ের বাইরেও ডিউটি করা লাগতে পারে। ডিউটির শিফটের সময়সূচি বা শিডিউল হয় সাধারণত সকাল ৬টা থেকে ২টা, ২টা থেকে রাত ১০টা, রাত ১০টা থেকে ভোর ৬টা। নিজের সুবিধামতো অনেকেই তাদের শিফট পরিবর্তন করে নিতে পারেন।

ছুটি কেমন

ছুটির কোনো নির্দিষ্ট দিন নেই। আপনার ডিউটির রোস্টার অনুযায়ী সপ্তাহে একদিন ছুটি পাবেন। সেটি, রবি, সোম মঙ্গল যেকোনো দিন হতে পারে। আপনি ক্যাজুয়াল লিভ পাবেন ১০ টি। এছাড়া অসুস্থার জন্যে ছুটি পাবেন। তবে অসুস্থতা ভিন্ন অনান্য ছুটি পাওয়া খুব সমস্যা। এটা নির্ভর করে আপনার স্টেশনের কাজের চাপ ও কত গুলি স্টাফ আছে তার উপর। তবে যদি আপনি জাতীয় ছুটির দিন গুলিতে ডিউটি করেন, তার জন্যে ওই দিনের ডাবল বেতন রেল আপনাকে দেবে।

বড় স্টেশন গুলিতে স্টাফ অনেক থাকার জন্যে, কাজের চাপ একটু কম হয়। কিন্তু যে সব স্টেশনে স্টাফ কম হয়, সেখানে কাজের একটু বেশী হতে পারে।

স্টেশন মাস্টারের বর্তমান পে ব্যান্ড হল ৪২০০/- টাকা। সমস্ত কিছু ভাতা ধরে, আপনার শুরুতেই বেতন ৫০ হাজারের উপরে চলে যাবে। তবে এটা নির্ভর করে, আপনি মেট্রো সিটি তে পোস্টিং পেয়েছেন না, রুরাল সিটি তে পোস্টিং পেয়েছেন। ধরুন, আপনি যদি কলকাতা, হাওড়ার এরিয়ার মধ্যে চাকরী পান, তবে আপনার বেতন বেশী হবে, অনান্য জেলা শহরের স্টেশন মাস্টার দের থেকে। কারন, মেট্রো সিটি তে হাউজ রেন্ট বেশী দেওয়া হয়।

ট্রেনিং, বেতন ও ভাতা

নতুন নির্বাচিত প্রার্থী বা নিয়োগপ্রাপ্তদের ট্রেনিং হয় সাধারণত ৭৮ দিনের। প্রশিক্ষণের সময় বেতন ২৮০০ টাকা গ্রেড পে হিসেবে দেয়া হয়। তবে ট্রেনিং শেষে প্রতি মাসে পূর্ণাঙ্গ বেতন দেয়া হয়।

বেতন স্কেল : ৯৭০০-২৩,৪৯০ টাকা (গ্রেড-১৫)

এছাড়া আপনি বিভিন্ন অ্যালাউন্স বা ভাতা পাবেন। যেমন, হাউজ রেন্ট অ্যালাউন্স, নাইট অ্যালাউন্স, ডিউটির জন্যে বাইরে যেতে হলে, তার ট্রাভেলিং অ্যালাউন্স ইত্যাদি। তবে আপনি রেল কোয়ার্টার নিলে হাউজ রেন্ট পাবেন না। এছাড়া ফ্রী মেডিকেল সুবিধা পাবেন পরিবারের সবার, বাচ্চার পড়াশুনার খরচ ও পাবেন। ঘুরতে যাওয়ার এসি ক্লাস পাশ পাবেন বছরে দু’বার। এই সমস্ত নানা সুবিধার জন্যে, রেলওয়ে চাকরী সবার কাছে জনপ্রিয়।

প্রমোশন বা পদোন্নতির ধাপ


স্টেশন মাস্টার পদ থেকে পর্যায়ক্রমে কোন কোন পদে পদোন্নতি হয়, সেটার ক্রম দেয়া হলো :

  • ১. স্টেশন মাস্টার
  • ২. সিনিয়র সুপারিটেনডেন্ট – বড় বড় স্টেশন গুলিতে ৪-৫ জন স্টেশন মাস্টার থাকে, তাদের হেড হল এই পোস্ট।
  • ৩. AOM ( অ্যাসিস্টান্ট অপারেশন ম্যানেজার)
  • ৪. DOM ( ডিভিশনাল অপারেশন ম্যানেজার)
  • ৫. Sr. DOM ( সিনিয়র ডিভিশনাল অপারেশন ম্যানেজার)

৩, ৪, ও ৫ নম্বর ক্রমিকের পোস্টে প্রমোশন পেয়ে আসতে অনেক সময় লেগে যায়। কারণ এটি নির্ভর করে, আপনার যোগ্যতা ও এই পদের শূন্য পদ থাকার ভিত্তিতে। এই পদে প্রমোশন পেতে অনেকের ১৪-১৫ বছর লেগে গেছে। সামনে আরো বেশি সময় লাগতে পারে।

বদলি

বদলি বা ট্রান্সফারের সুবিধা পাওয়া যাবে। তবে প্রথম পোস্টিংয়ের ডিভিশনের ভেতরই ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে বদলি করা হয় সাধারণত। এক জোন থেকে অন্য জোনে ট্রান্সফার হওয়াটাও সম্ভব, তবে অনেক সময় সাপেক্ষ।

শিক্ষা ও চাকরি বিষয়ক দরকারি তথ্য নিয়মিত পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে ( facebook.com/EduDailyOfficial ) লাইক দিয়ে রাখুন এবং
ইউটিউব চ্যানেলে ( youtube.com/edudaily24 ) সাবস্ক্রাইব করুন।

Rate this post

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button