খবর

শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের ভাতা বাড়ানোর দাবিতে আবারো রাজপথে আন্দোলনকারীরা

শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের ভাতা বাড়ানোর দাবিতে আবারো রাজপথে নেমেছে পোস্টগ্র্যাজুয়েট প্রাইভেট ট্রেইনি ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন। ১৭ জুলাই ২০২৩ তারিখ বেলা ১১টায় রাজধানী ঢাকার শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনের রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন শুরু করেন চিকিৎসকরা।

৫০ হাজার টাকা মাসিক ভাতার দাবিতে আবারো আন্দোলনে নেমেছে বেসরকারি রেসিডেন্ট ও নন-রেসিডেন্ট পোস্টগ্র্যাজুয়েটরা। তাদের দাবি, ১৬ জুলাই ২০২৩ তারিখে এক ঘোষণার মাধ্যমে ৫ হাজার টাকা বাড়িয়ে ২৫ হাজার টাকা ভাতা নির্ধারণ করাকে কোনভাবেই মেনে নেবে না শিক্ষানবিস চিকিৎসকরা।

এসময় তারা ‘বেতন ভাতার উন্নয়ন, করতে হবে বাস্তবায়ন’, ‘আশ্বাস নয় প্রমাণ চাই, ৫০ হাজার ভাতা চাই’, ‘ক্ষুদা পেটে সেবা নয়, অধিকার চাই ভিক্ষা নয়’ এসব স্লোগান দিতে থাকেন।

আন্দোলনকারী চিকিৎসকরা বলেন, সাত দিনের মধ্যে আমরা প্রজ্ঞাপন নিয়ে ঘরে ফিরতে চাই। আমরা কোন দয়াদক্ষিণা চাই না। ৫০ হাজার টাকা ভাতা আমাদের অধিকার। ২৫ হাজার টাকা ভাতা আমরা কোনোভাবেই মেনে নিব না।

পোস্টগ্র্যাজুয়েট প্রাইভেট ট্রেইনি ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. জাবের হোসেন বলেন, আমরা গতকাল শুনেছি ২৫ হাজার টাকা ভাতা বাড়ানো হয়েছে, এটা একটা উড়ন্ত খবর। এর কোনো সত্যতা নেই। যদি সত্যও হয়, ২৫ হাজার টাকায় আমরা সন্তুষ্ট নই। আমরা এমন একটা ভাতা চাই, যেটা দিয়ে পরিবার নিয়ে সুন্দর করে জীবনযাপন করতে পারি, পাশাপাশি আমাদের চলমান কোর্সটি সুন্দরভাবে শেষ করতে চাই।

তিনি বলেন, আজকের মতো শান্তিপূর্ণ অবস্থান করতে চেয়েছিলাম, কিন্তু আমাদের ওপর ১৬ জুলাই ২০২৩ তারিখে হামলা করা হয়েছে, তা কোনোভাবেই কাম্য ছিল না। এই অন্যায়ের বিচার আমরা চাই। ইন্টার্ন চিকিৎসকরা আমাদের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেছে। ইন্টার্ন চিকিৎসকদেরও আমরা পাশে পাবো।

ইন্টার্ন / শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের মাসিক ভাতা ২৫ হাজার

রেসিডেন্ট ও নন রেসিডেন্ট শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের মাসিক ভাতা ২০ হাজার থেকে ২৫ হাজার টাকা করা হয়েছে। ২৬ জুলাই ২০২৩ সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর এই ঘোষণা দেয়।

অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, বেসরকারি রেসিডেন্ট ও নন-রেসিডেন্ট পোস্ট গ্রাজুয়েট মেডিক্যাল শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের ভাতা ২৫ হাজার টাকায় উন্নীত করা হয়েছে।

4.7/5 - (3 votes)

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button