খবর

২৫ বছরে ৪ হাজার জানাজায় অংশ নিয়েছেন গাজীপুরের আইয়ুব

উপজেলার কোথাও মানুষের মৃত্যু হয়েছে শুনলেই জানাযায় অংশ নিতে ছুটে যান হাফিজুল হক চৌধুরী আইয়ুব । এ পর্যন্ত চার হাজারেরও বেশি ব্যক্তির জানাযায় অংশ নেন আইয়ুব। দীর্ঘ পচিশ বছর ধরেই মৃত ব্যক্তিদের জানাযায় অংশ নেন তিনি।
মূলত আল্লাহ তায়ালার নৈকট্য ও সোওয়াবের আশায় তিনি কাছে কিংবা দূরের এলাকার এসব জানাজায় অংশ নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন। বাবার মৃত্যুর পর থেকেই মৃত মানুষের জানাযায় অংশ নেওয়ার আগ্রহটা তার বেড়ে যায়। প্রথমে এই নিজ ইউনিয়নের সব জানাজায় অংশ নিতে শুরু করেন। পরে সমগ্র উপজেলার জানাজাগুলোতে অংশ নেওয়ার চেষ্টা করেন।
আইয়ুবের বাড়ি গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া উপজেলার তরগাঁও ইউনিয়নের মৈশন-মিয়ারবাজার এলাকায়। তার বাবা মৃত মো: নুরুল ইসলাম চৌধুরী। আইয়ুব পেশায় একজন রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবী। এছাড়াও তিনি ছিলেন স্থানীয় কাপাসিয়া ডিগ্রি কলেজেরও সাবেক ভিপি। করোনাকালীন সময়েও থেমে ছিলো না তার এই কার্যক্রম।
এমনকি প্রচন্ড ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষাকরে রাতবিরাতেও ছুটে গিয়েছেন মৃত মানুষের জানাযায়। দুর্গম পথে ২০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে কিশোরগঞ্জের পাগলা থানা এলাকায় অংশ নিয়েছেন জানাযায়। যা তার জীবনের উল্লেখযোগ্য স্মৃতিগুলোর মধ্যে একটি। এদিকে তার বাবা মৃত নুরুল ইসলাম চৌধুরীও ছিলেন সমাজসেবক ও ইউপি সদস্য।
তার মরহুম বাবার নামে রয়েছে স্মৃতি ফাউন্ডেশন। ভাই-বোন-ভাতিজা-ভাগ্নে ও বন্ধু-বান্ধবদের সহযোগিতায় ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে দাড়াচ্ছেন অসহায়-দরিদ্র মানুষের পাশে।
এছাড়া, উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে প্রতিদিন মারা যাওয়া ব্যক্তিদের নাম লিপিবদ্ধ করে রেখে দেন ডায়েরিতে। প্রতি বছর মৃত এসব মানুষদের স্মরণে আয়োজন করেন বাৎসরিক ওয়াজ ও দোয়ার মাহফিল। নিরহংকারী ও পরোপকারী হিসেবে পরিচিত আইয়ুবকে এলাকার মানুষজনও খুব ভালোবাসেন।
Video :

প্রতিবেদন: সবুজ আহমেদ
5/5 - (2 votes)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page